Aajbikel

২২ মাসে প্রায় দেড় লক্ষ কুইন্টাল আটা ‘লুঠ’! বাকিবুর-বালুর আঙুল ফুলে কলাগাছ! রিপোর্ট দিল ইডি

 | 
জ্যোতিপ্রিয় বাকিবুর

কলকাতা: রেশন দুর্নীতির জাল যে বহু দূর বিস্তৃত রয়েছে, সেই ইঙ্গিত আগেই পেয়েছিলেন ইডি-র আধিকারিকরা৷ উত্তর ২৪ পরগনা এবং নদিয়ার বহু চাল এবং আটাকল নিয়ে চলছিল দুর্নীতির সিন্ডিকেট৷ কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটির তদন্তকারীরা অফিসাররা দাবি করেছিলেন, এই সিন্ডিকেটের অন্যতম মাথা প্রাক্তন খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক ঘনিষ্ঠ ব্যবসায়ী বাকিবুর রহমান। সেই সম্পর্কিত একাধিক তথ্য নথির আকারে জমা করল ইডি৷ যা দেখে চোখ ছানাবড়া অনেকেরই৷

জানা গিয়েছে, ২০২১ সালের পয়লা ডিসেম্বর থেকে ২০২৩ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর- এই ২২ মাসে প্রচুর মুনাফা লুটেছিল বাকিবুরের ‘মেসার্স এনপিজি রাইস মিল প্রাইভেট লিমিটেড’৷ এই সংস্থা একাই তার ডিস্ট্রিবিউটরদের কাছে নির্ধারিত পরিমাণের চেয়ে ১ লক্ষ ৪২ হাজার ৫০০ কুইন্টালেরও বেশি আটা কম সরবরাহ করেছে। যা মোট নির্ধারিত পরিমাণের ২৫.৫৫ শতাংশ। অর্থাৎ, মোট আটার চার ভাগের এক ভাগ সরবরাহই করা হয়নি। অথচ, সেই বাবদ টাকা এসেছে সরকারের ঘর থেকে৷ তদন্তে নেমে ইডি জানতে পেরেছে, বাকিবুর চাল ও আটা দুর্নীতির মাধ্যমে নগদে ৯০০ কোটিরও বেশি অর্থ পকেটে পুরেছিলেন। যে টাকার একটি অংশ তিনি পাঠিয়েছিলেন তৎকালীন খাদ্য এবং সরবরাহ মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের দরবারে৷ 

Around The Web

Trending News

You May like