population

নয়াদিল্লি: আগামী ৫ বছরে ৫ ট্রিলিয়নের স্বপ্ন ক্রমশঃ দুঃস্বপ্নে পরিণত হচ্ছে দেশের জনগণের কাছে৷ এইতো দু’দিন আগেও দেশের ঝিমিয়ে পড়া অর্থনীতিকে মন্দা বলতে নারাজ ছিলেন মোদি সরকারের অর্থমন্ত্রী৷ অথচ শুক্রবার বিকেলেই ফের জোর ধাক্কা খেল দেশের অর্থনীতি৷ চলতি অর্থবর্ষের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে জিডিপি বৃদ্ধির হার নেমে এল ৪.৫ শতাংশে৷ বিগত ৬ বছরের তুলনায় যা সর্বনিম্ন৷ দেশের অর্থনীতি যখন তলানিতে, ঠিক তখনই আরও উদ্বেগ বাড়িয়েছে আগামী ভারতের ভবিষ্যতদের দুর্বিসহ সমীক্ষা৷ ন্যাশনাল ফ্যামিলি হেলথ সার্ভে বলছে, অপুষ্টিরতে আক্রান্ত আগামী প্রজন্মের ভারত৷ অপুষ্টির গেরোয় ৫ বছরের নিচের অন্তত ৩৫ শতাংশ শিশু ওজন তলানিতে এসে ঠেকেছে৷

সংসদে কেন্দ্রের তরফে ন্যাশনাল ফ্যামিলি হেলথ সার্ভে উল্লেখ করে জানানো হয়েছে, গোটা দেশে ৫ বছরের নিচে থাকা ৩৫.৭ শতাংশ শিশুর ওজন কম৷ শারীরিক বিকাশ থমকে দেশের ৩৮.৪ শতাংশ শিশুর৷ এর জন্য প্রধানত দায়ী অপুষ্টি ও বেপরোয়া প্রজনন হিড়িক! ২০০৫ থেকে ২০০৬ সালের এই সমীক্ষার সময় উল্লেখ করা হয়েছে৷

১৩ বছরের পুরানো সেই সমীক্ষা রিপোর্ট উল্লখ করে কেন্দ্রীয় নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি জানিয়েছেন, কম ওজনের ৫ বছরের নিচে থাকা শিশুদের শারীরিক বিকাশ ভালো হয়নি৷ মূলত অপুষ্টিজনিত কারণে এই সমস্যা হয়েছে৷ শিশুদের এই সমস্যার সমাধানে সরকার একগুচ্ছ কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বলেও দাবি করছেন মন্ত্রী৷

সংসদে ন্যাশনাল ফ্যামিলি হেলথ সার্ভে উল্লেখ করে মন্ত্রী জানিয়েছেন, ৫ বছরের নিচে থাকা ৪২ শতাংশ শিশুর ওজন কম৷ ৪৮ শতাংশ শিশুর সঠিক শারীরিক বিকাশ ঘটেনি৷ কম্প্রিহেনসিভ ন্যাশনাল নিউট্রিশন সার্ভে ২০১৬-১৮ রিপোর্ট উল্লেখ করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানিয়েছেন, ৫ বছরের নিচে থাকা ৩৩.৪ শতাংশ শিশুর ওজন কম৷ ফলে, ২০০৫-২০০৬ সাল থেকে ২০১৬-২০১৮ সালেও যে পরিস্থিতির খুব একটা উন্নতি হয়নি বলেই মনে করছেন পর্যবেক্ষক মহল৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here