কলকাতা: জয়েন্ট এন্ট্রান্স পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র করার ক্ষেত্রে বাংলা সহ অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষাকেও প্রাধান্য দিতে হবে৷ এই দাবিতেই সোচ্চার হলেন তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ জয়েন্ট এন্ট্রান্স মেইন পরীক্ষায় ইংরেজি ও হিন্দির পাশাপাশি গুজরাটি ভাষাতেও প্রশ্নপত্র হবে৷ ন্যাশনাল টেষ্টিং এজেন্সির এই ঘোষণার পরেই ক্ষুব্ধ তৃণমূল নেত্রী কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ভাষা বৈষম্যের অভিযোগ এনে আন্দোলনের তোরজোর শুরু করে দিয়েছেন৷ আগামী ১১নভেম্বর এই দাবিতে রাজ্যজুড়ে কর্মসূচি পালনেরও ডাক দিয়েছেন মমতা৷ মুখ্যমন্ত্রীর এই দাবিকে সমর্থন জানিয়েছে রাজ্যের শিক্ষকমহল থেকে ছাত্রসংগঠনগুলি৷

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করছেন এর আগেও জয়েন্ট এন্ট্রান্স মেইন-এ বাংলাভাষায় প্রশ্নপত্র করার দাবি জানানো হয়েছিল৷ এদিকে ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সির দাবি৷ ২০১৩ সালে যখন প্রথম জয়েন্ট এন্ট্রান্স মেইন শুরু হয়৷ তখন এই পরীক্ষার মাধ্যমে ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজগুলিতে ছাত্রছাত্রীদের ভর্তির জন্য সব রাজ্যের কাছেই আবেদন জানানো হয়েছিল৷ এক্ষেত্রে প্রথমে গুজরাট থেকেই পরীক্ষার্থীরা এই পরীক্ষার মাধ্যমে গুজরাট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ভর্তি হয়৷ তখন থেকেই গুজরাটি ভাষায় প্রশ্নপত্র তৈরির দাবি জানিয়ে আসছিল রাজ্য সরকার৷

এরপর মহারাষ্ট থেকে পরীক্ষার্থীরা এই পরীক্ষার মাধ্যমে ভর্তি হতে শুরু করে৷ তখন সেই রাজ্যের তরফে মারাঠি ও উর্দু ভাষায় প্রশ্নপত্র করার দাবি ওঠে৷ তবে ২০১৬ সাল থেকে এই দুটি রাজ্যই এই পরীক্ষার মাধ্যমে ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজে ছাত্র ভর্তির প্রক্রিয়ায় অসম্মতি জানায়৷ পশ্চিমবঙ্গ থেকে এমন কোনও আবেদন তারা পাইনি বলেই জানিয়েছে এনটিএ৷

অন্যদিকে এনটিএর বিজ্ঞপ্তির ছবি আপলোড করে এই বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশ্যে ট্যুইট করছেন বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গী৷ ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, ‘ডিভাইডার দিদি, ভাষার নামে মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরি করলে ভোট বাড়বে না৷ আপনি কোনওদিনই বাংলায় জয়েন্ট নেওয়ার দাবি তোলেননি৷’

অন্যদিকে বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় মমতাকে কটাক্ষ করে ট্যুইটে লিখেছেন- ‘এবার দয়া করে টুইটগুলি মুছে ফেলে তাড়াতাড়ি বাংলায় জয়েন্ট এন্ট্রান্স-এর প্রশ্নপত্র বানানোর ‘রিকোয়েস্ট লেটার’টা লিখে পাঠিয়ে দিন৷ এটি যাতে সত্বর করানো যায় তা আমি নিজে দেখবো ! শুধু পলিটিক্স করে বাংলার মানুষের অপূরণীয় ক্ষতি করে চলেছেন আপনি ও আপনার৷’

প্রসঙ্গত বাংলায় জয়েন্ট নেওয়ার দাবি জানিয়ে কয়েক মাস আগেই ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সিকে চিঠি দেয় শিক্ষা দফতর৷ তারপরেও ওই সংস্থা শুধু গুজরাটি ভাষাকেই প্রাধান্য দিল কেন এনিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তৃণমূল নেত্রী৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here