কলকাতা: উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের মেধা তালিকায় অনিয়মের অভিযোগ তুলে ফের পথে নামার হুঁশিয়ারি চাকরিপ্রার্থীদের একাংশ৷ অনিয়মের বিরুদ্ধে ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে বুঝে নেওয়ার হুঁশিয়ারি চাকরিপ্রার্থীদের৷

আরও পড়ুন: TET নম্বর বিভ্রাটে জাবাব SSC-র, অনিময় প্রমাণে পদত্যাগের হুঁশিয়ারি

বাম যুব ছাত্র নেতা ইন্দ্রজিৎ ঘোষ জানিয়েছেন, ২০১৫ সালের ১৬ আগস্ট উচ্চ প্রাথমিকের পরীক্ষা নেওয়া হয়৷ ২০১৬ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর ফলাফল প্রকাশ করে স্কুল সার্ভিস কমিশন৷ লড়াই আন্দোলন মালার পর হাইকোর্টের নির্দেশ গত ৪ অক্টোবর মেধা তালিকা প্রকাশ করেছে কমিশন৷ কিন্তু তাতে ভুল!

আরও পড়ুন: নতুন শিক্ষক নিয়োগে ‘না’, নয়া বিধি শিক্ষা দপ্তরের

বাম ছাত্রনেতা ইন্দ্রজিৎ ঘোষের প্রশ্ন, ‘‘টেট, একাডেমিকের নম্বর বেড়েছে অনেকের৷ প্রশ্ন কী করে বাড়ল? কেন বাড়ল? পাস করে, ভেরিফিকেশনের পরও কেন ইন্টারভিউয়ে বাদ গেলেন একাধিক সফল চাকরিপ্রার্থী? আদালত তো জানিয়েছিল, যাঁরা ইন্টারভিউ দিয়েছে সবার নাম রাখতে হবে৷ তবে কেন নেই? মাল্টিপিল র‍্যাঙ্ক কেন করা হল না? এর জন্য দায়ী কে? সংরক্ষণের নিয়ম কেন মানা হল না? কেন অনুপাত বজায় রাখা হল না? ইন্টারভিউয়ের নম্বর কেন মেনুপুলেট কেন করা হল? কমিশন বলেছিল, স্বচ্ছ মেরিট লিস্ট৷ আদালত বলেছিল, এই লিস্টে গোলমাল থাকলে তা অভিযোগ আকারে কমিশনকে জানাতে৷’’

আরও পড়ুন: SSC-র দপ্তরে করা যাবে না মিছিল-মিটিং, মামলা গড়াচ্ছে হাইকোর্টে

তাঁর আরও মন্তব্য, ‘‘পুজোর ছুটি চলছে৷ তার মধ্যেই দু’হাজারের বেশি অভিযোগ জমা পড়েছে৷ আজ সকাল থেকে শুরু হয়েছে৷ এখনও চলছে৷ আগামিকাল ১৬ অক্টোবর ও ১৮ অক্টোবর সংগঠিত ভাবে চাকরিপ্রার্থীরা আসবে আরও ভিড় হবে৷ দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমরা প্রস্তুত৷ দেখি কমিশন কি করে৷ আর তা না হলে এক ইঞ্চিও যায়গা ছাড়াব না৷’’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here