কলকাতা: নতুন করে আর হবে না শিক্ষক নিয়োগ৷ নতুন নিয়ম লাঘু করে শিক্ষক নিয়োগে স্বচ্ছতা আনতে চলেছে রাজ্য সরকার৷ চলতি নিয়োগ যেমন চলছে তেমন চলবে৷ তবে চলতি ব্যবস্থায় নতুন করে আর শিক্ষক নিয়োগ করা হবে না৷ নিয়োগের স্বচ্ছতা আনতে নয়া বিধি আগামীতে কার্যকর হবে বলে সাফ জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ এই মর্মে আসতে চলেছে বিজ্ঞপ্তি৷

শিক্ষক নিয়োগে এবার নতুন পদ্ধতি আসতে চলেছে৷ আর সেই কারণে, নতুন বিধি না আসা পর্যন্ত পুরানো ব্যবস্থায় নতুন করে শিক্ষক নিয়োগ হবে না৷ বদল আসবে পরীক্ষা ব্যবস্থা৷ কাউন্সেলিং প্রক্রিয়া সরলীকরণ করা হবে৷ এই মর্মে তৈরি হচ্ছে শিক্ষক নিয়োগের নতুন পদ্ধতি৷ পরিবর্তিত বিধি অনুযায়ী, নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জারি হওয়ার সম্ভবনার কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী৷ এই মর্মে এসএসসি ও পর্ষদকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে খবর৷

লিখিত পরীক্ষার উপর বেশি গুরুত্ব দেওয়ার কথাও জানিয়েছেন৷ তবে, চলতি নিয়মে নতুন করে কোনও শিক্ষক নিয়োগ করা না হলেও চলতি নিয়োগ প্রক্রিয়াগুলি চলবে৷ নতুন বিধি অনুযায়ী প্রাথমিক, উচ্চ প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরে শিক্ষক নিয়োগে নিয়মে বদল করা হবে৷ নতুন বিধি না আসা পর্যন্ত নতুন করে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি জারি উপর বিধিনিষেধ চালুর ভাবনায় চলতি বছরে নতুন করে টেট বা এসএলএসটি হওয়ার সম্ভবনা কম বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষক মহলের একাংশ৷

লাগাতার মামলা, নিয়োগ ঘিরে অসঙ্গতির অভিযোগের জেরে শিক্ষক নিয়োগে নতুন পদ্ধতি আনার কথা জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী৷ শনিবার এবিপি আনন্দকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘‘নতুন করে আর হবে না শিক্ষক নিয়োগ৷ নতুন নিয়ম চালু করে শিক্ষক নিয়োগে স্বচ্ছতা আনা হবে৷ চলতি নিয়োগ যেমন চলছে তেমন চলবে৷ তবে বর্তমান নিয়োগের যে ব্যবস্থা চালু আছে তা আর আগামীতে কার্যকর হবে না৷ কীভাবে শিক্ষক নিয়োগ ত্বরান্বিত করা যায় সেটা আমরা দেখছি৷ আরও বেশি স্বচ্ছতা আনতে আমরা পদ্ধতি পরিবর্তন করছি৷ কাউন্সেলিংয়ের জটি পদ্ধতির জেরে অনেক সমস্যা, সময় লেগে যাচ্ছে৷ এই সমস্যা মেটাতে লিখিত পরীক্ষায় বেশি গুরুত্ব দেওয়া হবে৷ একটি কাউন্সিলিংয়ের মাধ্যমে নিয়োগ প্রক্রিয়া করা যায় কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷’’

গত বাজেট অধিবেশনে বিধানসভায় দাঁড়িয়ে শিক্ষামন্ত্রী নিজে ঘোষণা করেছিলেন, শিক্ষক নিয়োগে যেভাবে আইনি জটিলতা বাড়ছে, এই নিয়ে সমস্ত দিক খতিয়ে দেখে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় আমূল পরিবর্তন আনা হতে পারে৷ আরও সরলীকরণ করা হতে পারে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া৷ শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় ওয়েটিং লিস্ট তুলে দেওয়ার পক্ষেও সওয়াল করেছিলেন তিনি৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here