কলকাতা: নাগরিক পঞ্জির প্রতিবাদে পথে নেমে কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে ফের যুদ্ধ ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আজ সিঁথির মোড় থেকে শ্যামবাজার পর্যন্ত দীর্ঘ পদযাত্রা শেষে কড়া হুঁশিয়ারি দেন তৃণমূল সুপ্রিমো৷ মঞ্চ থেকে সরাসরি অমিত শাহ ও দিলীপ ঘোষকে আক্রমণ করেন মমতা৷

এদিন শ্যামবাজারের তৃণমূলের মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণা, ‘‘বাংলার সব নেতারা বলছেন, বাংলায় এনআরসি হবেই৷ দু’কোটি নাম বাদ যাবে৷ আমি বলছি, এক জনের নাম বাদ দিয়ে দেখান৷ একজনের গায়ে হাত দিয়ে দেখান৷ তারপর বুঝবেন৷ আমরা, ধর্মের ভিত্তিতে করা এনআরসি মানব না৷ বাংলায় যারা আছেন, তাঁরা সবাই বাংলার নাগরিক৷’’

এদিন অমিত শাহকে নিশানা করে তৃণমূল নেত্রীর ঘোষণা, ‘‘আমাদের হিন্দু ধর্ম শেখাতে আসবেন না৷ বলছে, বাংলা নাকি বাংলায় কোনও পুজো হয় না৷ বাংলায় সব পুজো সাড়ম্বরে পালিত হয়৷ পুজোয় এসো, খিচুড়ি ভোগ খাওয়াবো৷ আমাদের ওম শব্দের অর্থ বোঝাতে আসবেন না৷ আমাদের নতুন করে হিন্দু ধর্ম শেখাতে হবে না৷ আমারকে ধর্ম শেখাচ্ছে?’’ বলেন, ‘‘বাংলা কখনও মাথা নত করবে না৷ আর একটা ভারত ভাগ করার চেষ্টা করবেন না৷ আর একটা বঙ্গভঙ্গ করতে দেওয়া চলবে না৷ বাংলায় যারা হিংসা করে তারা যেন জেনে রাখুন, বাংলা কারো কাছে মাথা নত করে না৷ বন্দেমাতরম স্লোগান বাংলা থেকে তৈরি হয়েছিল৷ আমরা আছি দেশকে রক্ষা করার জন্য৷’’

এদিন তৃণমূলের মিছিল উপলক্ষ্যে বিশাল জমায়েত করেন কয়েক হাজার তৃণমূল কর্মী-সমর্থক৷ রাস্তার দু’পাশ বিশাল পুলিশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা মোতায়েন করা হয়৷ মিছিলে মুখ্যমন্ত্রীকে সংবর্ধনা দেন তৃণমূল কর্মীদের একাংশ৷ হাতে আঁকা বিশাল একটি ছবি মুখ্যমন্ত্রীকে উপহার দেন তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের একাংশ৷ সিঁথির মোড় থেকে শ্যামবাজার পর্যন্ত মিছিল ঘিরে বিশাল নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়৷ সপ্তাহের মাঝে তৃণমূলের এই কর্মসূচি জুড়ে থমকে যায় ওই অঞ্চলের যান চলাচল৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here