কলকাতা: দাবি তিনটি৷ শিক্ষায় খরচ কমানো৷ বেকার ভাতা চালু ও চাকরির দাবি৷ এই তিনটি দাবিকে তুলে ধরে এবার লাল নিশান উড়িয়ে ফের নবান্ন অভিযানের সামিল হয়েছেন বাম ছাত্র-যুব সংগঠনের কয়েক হাজার কর্মী-সমর্থক৷ আজ সিঙ্গুর থেকে মিছিল শুরু হয়েছে৷ পৌঁছে গিয়েছে ডানকুনিতে৷ সেখান থেকেই শুক্রবার নবান্ন অভিযান করবে বাম ছাত্র সংগঠন৷ কিন্তু নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে বাম-ছাত্র সংগঠনের নবান্ন কর্মসূচি অভিযানে অনুমতি দেয়নি পুলিশ৷ তবুও অনড় বাম ছাত্র যুব সংগঠন৷ আর এই কর্মসূচি ঘিরে শুক্রবার ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে নবান্নে চত্বরে৷

বাম ছাত্র-যুব সংগঠনের তরফে আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, অনুমতি দিক বা না দিক, রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তাদের প্রতিবাদ চলবেই৷ যুব-ছাত্র সংগঠনের এই কর্মসূচি রুখতে ইতিমধ্যেই মাঠে নেমেছে পুলিশ৷ সিঙ্গুর থেকে নবান্ন পর্যন্ত লংমার্চ রুখতে ইতিমধ্যেই তৎপরতা শুরু করেছে প্রশাসন! কেননা, নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে নবান্ন চত্বরে আগেই মিছিল-মিটিং জামায়াতের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পুলিশ৷ জারি ১৪৪ ধারা৷ এমনকী, নবান্ন লাগোয়া কয়েকটি এলাকায় জমায়েত পর্যন্ত করার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে৷

ফলে আগামীকাল শুক্রবার ছাত্রসংগঠনের নবান্ন অভিযান ঘিরে তৈরি হয়েছে আশান্তির আশঙ্কার মেঘ৷ মিছিল রুখতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে পারে প্রশাসন৷ জলকামান তো আছেই! সঙ্গে পুলিশের লাঠিচার্জ৷ কাঁদানে গ্যাসের শেল কিংবা পুলিশের লাঠি কিছুই দমাতে পারবে না মিছিল৷ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বাম ছাত্র সংগঠনের তরফে৷

নবান্ন কেন, অন্যান্য আন্দোলন-কর্মসূচিতে রুখতেও ব্যারিকেড করে আন্দোলন-মিছিল রুখে দিয়েছে পুলিশ৷ সম্প্রতি বিজেপির যুব মোর্চার মিছিলে জলকামান, লাঠি, কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে মিছিল থামিয়ে দিয়েছে কলকাতা পুলিশ৷ এমনকি শিক্ষাবন্ধু, পার্শ্বশিক্ষক ও প্রাথমিক শিক্ষকদের আন্দোলনে বেপরোয়াভাবে পুলিশ আন্দোলন কর্মসূচি রুখে দিয়েছে৷ এ ক্ষেত্রেও যে একই ব্যবস্থা নেওয়া হবে না তা আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষক মহলের একাংশ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here