কলকাতা: চাকরির আবেদন নিয়ে বাম যুব ছাত্র সংগঠনের নবান্ন অভিযান রুখতে তৎপরতা শুরু করল পুলিশ৷ একইসঙ্গে বঙ্কিম সেতু ও মল্লিক ফটকের কাছে বিশাল পুলিশ-জামায়াত করা হয়েছে৷ গড়ে তোলা হয়েছে ব্যারিকেড৷ প্রস্তুত রাখা হয়েছে বেশ কয়েকটি জলকামান৷ কাঁদানে গ্যাসের শেল হাতে প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছে পুলিশ৷ কিন্তু নবান্ন অভিযানে সফল করতে অনড় বাম ছাত্রসংগঠন৷ পুলিশ মিছিলকে আটকে দিলেও অভিযান চলবেই বলে ঘোষণা করেছে বাম ছাত্র সংগঠনের তরফে৷

ইতিমধ্যেই ফোরশোয়া রোডের কাছে জমায়েত করেছেন বাম ছাত্র সংগঠনের কর্মী সমর্থকরা৷ সেখান থেকেই হবে অভিযান৷ কিন্তু মিছিল রুখত ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে পুলিশ৷ কোনভাবেই নবান্নের দিকে মিছিল যেতে দেওয়া হবে না৷ পুলিশ নবান্ন চত্বরের আগেই জিটি রোডে ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তা বলয় বন্দোবস্ত করেছে৷ বঙ্গবাসী মোড়ের কাছে পুলিশ তাঁদের আটকে দেবে বলে জানা গিয়েছে৷ লোহার গার্ডওয়াল ও বাঁশের ব্যারিকেড তৈরি করা হয়েছে৷ বাঁশের ব্যারিকেড শেষে মেটাল ওয়াল থাকছে৷ রাখা হয়েছে বেশ কয়েকটি জলকামান৷ ‌

বাম ছাত্র-যুব সংগঠনের তরফে আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, অনুমতি দিক বা না দিক, রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে তাদের প্রতিবাদ চলবেই৷ যুব-ছাত্র সংগঠনের এই কর্মসূচি রুখতে ইতিমধ্যেই মাঠে নেমেছে পুলিশ৷ কেননা, নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে নবান্ন চত্বরে আগেই মিছিল-মিটিং জামায়াতের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে পুলিশ৷ জারি ১৪৪ ধারা৷ এমনকী, নবান্ন লাগোয়া কয়েকটি এলাকায় জমায়েত পর্যন্ত করার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে৷

ফলে আজ শুক্রবার ছাত্রসংগঠনের নবান্ন অভিযান ঘিরে তৈরি হয়েছে আশান্তির আশঙ্কার মেঘ৷ মিছিল রুখতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিতে পারে প্রশাসন৷ জলকামান তো আছেই! সঙ্গে পুলিশের লাঠিচার্জ৷ কাঁদানে গ্যাসের শেল কিংবা পুলিশের লাঠি কিছুই দমাতে পারবে না মিছিল৷ হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বাম ছাত্র সংগঠনের তরফে৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here