কলকাতা: টেট পরীক্ষায় ভুল প্রশ্ন মামলায় চাঞ্চল্যকর মোড়। কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে নির্দেশে চূড়ান্ত বিপাকে পর্ষদ৷ গতবছর অক্টোবরের কলকাতা হাইকোর্টের সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশকেই বহাল রাখাল কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ৷ ফলে, যাঁরা ভুল ছ’টি প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন, বা দেননি, তাঁদের দিতে হবে পূর্ণ নম্বর৷ ফলে, নম্বর বাড়লে বদলে যেতে পারে মেধা তালিকা৷

প্রাইমারি টেট মামলায় রায়ে গত বছর ৩ অক্টোবর কলকাতা হাইকোর্টের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, ২০১৫-এর প্রাইমারি টেটের প্রশ্ন ভুল ছিল। ভুল প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করলেই দেওয়া হবে নম্বর। ভুল প্রশ্নের উত্তর দিয়ে কেউ যদি মেধাতালিকায় উত্তীর্ণ হন, তাঁকে চাকরি দিতে বাধ্য থাকবে পর্ষদ৷ এই মর্মে প্রাইমারি বোর্ডকে নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট৷ তবে যারা মামলা করেছিলেন কেবল তাঁদের ক্ষেত্রেই এই রায় কার্যাকর করা হয়৷ বাকিদের ক্ষেত্রে মামলা হলে বিষয়টি ভেবে দেখা হবে বলে জানিয়েছে আদালত। তবে, এখনই কর্মরতদের চাকরি বাতিল হচ্ছে না বলেও জানিয়ে দেয় আদালত৷ মেধাতালিকা সংশোধন হতে পারে বলে জানিয়েছে আদালত৷

এই মামলাকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে ডিভিশন বেঞ্চে যায় রাজ্য৷ কিন্তু, আজ ডিভিশন বেঞ্চের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, সিঙ্গেল বেঞ্চের নির্দেশ পরিবর্তন করার পিছনে যুক্তি দেখছে না আদালত৷ ফলে কার্যকর হচ্ছে গত বছর অক্টোবরের নির্দেশ৷ কলকাতা হাইকোর্টের এই নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ করতে গেলে সুপ্রিম কোর্ট ছাড়া আর কোনও গতি নেই রাজ্যের৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here