National flag to protest next
ফাইল ছবি৷

আজ বিকেল: রাত পোহালেই বিকাশ ভবনের সামনে লাগাতার অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করতে চলেছেন রাজ্যের পার্শ্বশিক্ষকরা৷ অবিলম্বে পার্শ্বশিক্ষকদের পূর্ণ শিক্ষকের মর্যাদা, সম কাজে সম বেতনের অধিকার বুঝে নিতে এবার রাজপথে নামতে চলেছেন পার্শ্বশিক্ষকদের বড় অংশ৷ ইতিমধ্যেই কয়েক হাজার পার্শ্বশিক্ষক উত্তরবঙ্গ থেকে রওনা হয়ে গিয়েছেন৷ অপেক্ষা শুক্রবারের জমায়েত৷ এবার সেই জমায়েতের মূল হাতিয়া এবার জাতীয় পতাকা৷

পার্শ্বশিক্ষকদের একাংশের অভিযোগ, এর আগে যতবারই বিক্ষোভ, কর্মসূচি হয়েছে, ততবারই শক্তি প্রয়োগ করেছে পুলিশ৷ লাঠিচার্জ থেকে জলকামান, গ্রেপ্তারি কিছুই বাকি রাখা হয়নি৷ এবারও যেতে তার পুনরাবিত্তি না হয়, সেই কারণে এবার জাতীয় পতাকা বুকে আগলে বিকাশ ভবন অভিযানে নামতে চলেছেন কয়েক হাজার পার্শ্বশিক্ষক৷ জাতীয় পতাকা হাতে শিক্ষকদের অন্দোলনের ডাক নজিরবিনীর বলেই মত পর্যবেক্ষক মহলের একাংশের৷ এক্ষেত্রে জাতীয় পতাকার অবমাননা যাতে না হয়, তা আন্দোলনকারী ও পুলিশ দুই পক্ষকেই সতর্ক থাকতে হবে বলেও মত পর্যবেক্ষক মহলের৷

অন্যদিকে, সম কাজে সম বেতনের দাবিতে আন্দোলন ডাকা হলেও পার্শ্বশিক্ষকদের ‘রণে ভঙ্গ’ দিতে ব্যবধানে বাধ্যমূলক হাজিরার নির্দেশ দিল সমগ্র শিক্ষা অভিযান৷ মঙ্গলবার বিজ্ঞপ্তি জারি করে সমগ্র শিক্ষা অভিযানের তরফে জানানো হয়েছে, বাধ্যতামূলক ভাবে আগামী ১৬ আগস্ট পার্শ্বশিক্ষকদের শিক্ষক প্রশিক্ষণের সার্টিফিকেট জমা করা হবে স্বশরীরে৷ কিন্তু, হঠাৎ কেন এই তৎপরতা? কেনই বা বাধ্যতামূল হাজিরার নির্দেশ? সমগ্র শিক্ষা অভিযানের বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেজ্ঞ জানিয়ে এবার বিদ্রোহ ঘোষণা পার্শ্বশিক্ষকদের৷

শিক্ষকদের অভিযোগ, আগামী ১৬ আগস্ট বিকাশ ভবন অভিযান রুখতেই সমগ্র শিক্ষা অভিযান তিন দিনের ব্যবধানে বাধ্যতামূলক হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে৷ কিন্তু, এই সিদ্ধান্ত তাঁরা বয়কট করে বিকাশ ভবন অভিযান করবেন৷ তবে, শুধু সমগ্র শিক্ষা অভিযানই নয়, আন্দোলন রুখতে পুলিশ ইতিমধ্যেই আন্দোলনকারীদের ডেকে হুমকি দিয়েছে বলেও অভিযোগ৷ আন্দোলনে নামলে লাঠি পেটা করা হবে বলেও দেওয়া হয়েছে হুমকি৷ তবে, চাপে পড়েও নিজের অবস্থান থেকে পিছু হটতে নারাজ পার্শ্বশিক্ষকদরা৷

এই প্রসঙ্গে পার্শ্বশিক্ষক ঐক্যমঞ্চের তরফে মধুমিতা বন্দোপাধ্যায় ও ভগীরথ ঘোষ জানিয়েছেন, ‘‘১৬ আগস্ট পার্শ্ব শিক্ষক ঐক্য মঞ্চের কর্মসূচি বানচাল করার যে জঘন্য চক্রান্তে সরকার নেমেছে সেটা আমাদের কাছে পরিষ্কার। সরকারি কোনও বিজ্ঞপ্তি একদিনের জন্য কার্যকরী হতে পারে না৷ এছাড়া যেকোনও নির্দেশিকা অন্তত এক সপ্তাহ আগে করতে হয়৷ সরকার কোনও নিয়ম না মেনে শুধুমাত্র আন্দোলন স্তব্ধ করতেই এই ঘৃণ্য পদক্ষেপ৷ তাই ১৩ আগস্টের সমগ্র শিক্ষা অভিযানের নোটিফিকেশনকে সম্পূর্ণ রূপে বয়কট করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হল৷’’

ঠিক কী কী দাবিত পথে নামছেন পার্শ্বশিক্ষকরা? সম কাজে সম বেতন, পিতৃত্বকালীন ছুটি মেডিক্যাল লিভ সবকিছুর সুযোগ, কর্মরত পার্শ্বশিক্ষকের মৃত্যু হলে তাঁর পরিবারের সদস্যকে চাকরি, বিদ্যালয়ের সব ধর্মের শিক্ষামূলক কমিটিতে পার্শ্বশিক্ষকদের প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ, টেট পাস পার্শ্বশিক্ষকদের সহকারী শিক্ষক হিসেবে নিয়োগের দাবিতে বিকাশ ভবন অভিযানের ডাক দেওয়া হয়েছে৷ যতক্ষণ না পার্শ্বশিক্ষকদের আগামীর ভবিষ্যতের স্থায়িত্ব সম্পন্ন হচ্ছে ততক্ষণ বিকাশ ভবনের সামনে লাগাতার অবস্থান চলবে বলেও জানানো হয়েছে৷ দাবি আদায় না করে পার্শ্বশিক্ষক ঐক্যমঞ্চের সদস্যরা বাড়ি ফিরবেন না বলেও দেওয়া হয়েছে হুঁশিয়ারি৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here