কলকাতা: অবশেষে কলকাতা হাইকোর্টেক বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়ের এজলাস বয়কটের সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করলেন সরকারি প্যানেলে থাকা আইনজীবীরা৷ ভুল ‘বোঝাবুঝি’ হয়েছিল বলে সোমবারের এজলাস বয়কটের সিদ্ধান্ত তুলে নেওয়ার কথা জানান সরকারি আইনজীবীরা৷ বুধবার থেকে ফের সরকারি আইনজীবীরা মামলার শুনানিতে অংশ নেবেন বলে জানানো হয়েছে৷ নজিরবিহীন ভাবে সরকারি আইনজীবীদের এজলাস বয়কটের সিদ্ধান্ত ঘিরে রাজ্যজুড়ে তীব্র সমাচোনা তৈরি হওয়ার পর আগের সিদ্ধান্ত থেকে পিছু হটেন তাঁরা৷

বনগাঁ পুরসভার-সহ একাধিক পুরসভার অনাস্থা মামলার শুনানিতে এবার বিচারপতির এজলাস বয়কটের সিদ্ধান্ত নেন সরকারি আইনজীবীরা৷ বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়ের এজলাস বয়কট করে প্রধান বিচারপতিকে চিঠি  জেন ক্ষুব্ধ সরকারি আইনজীবীরা৷ পরে, এই ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে শতাধিক আইনজীবী পাল্টা বিচারপতিকে চিঠি পাঠান৷

সোমবার সরকারি আইনজীবীরা জানান, বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায় যে ভাবে মামলার শুনানিতে ‘রাজনৈতিক মন্তব্য’ করছেন, তাতে তাঁরা ক্ষুব্ধ৷ আর সেই কারণে সুবিচার হচ্ছে না বলেও জানান আইনজীবীদের একাংশ৷ এই মুহূর্তে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়ের এজলাসে রয়েছে একাধিক পুরসভার মামলা৷ এর আগে শাসক দল ও পুলিশের ভূমিকা নিয়ে কড়ায় ভাষায় সমালোচনা করেন বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায়৷ আর তাতেই ক্ষুব্ধ হয়েছেন আইনজীবীদের একাংশ৷

এজনাস বয়কট প্রসঙ্গে বিচারপতি চট্টোপাধ্যায় বনগাঁ পুরসভার মামলার শুনানিতে বলেন, ‘‘সরকারি আইনজীবীরা বয়কটের সিদ্ধান্ত নিল তাতে আমার কিছু যায় আসে না৷ আমি যে আসনে বসে আছি, তার সঙ্গে নাই বিচার করায় আমার প্রধান কাজ৷ আমার নির্দেশ পছন্দ না হলে প্রধান বিচারপতির কাছে আবেদন করতে পারে৷ আমি যদি ঠিক ভুল নির্বিশেষে সরকারের সিদ্ধান্তই সহমত পোষণ করি, তাহলে সেটা অবিচার হবে৷ সরকারি আইনজীবীরা তাদের পছন্দের বিচারপতির কাছে মামলা করবেন৷’’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here