Babul-vs-Abhishek

কলকাতা: ফের তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘বাড়ি’ নিয়ে প্রশ্ন তুললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রীয়৷ বৃহস্পতিবার তিনি জানান, কাটমানির টাকায় তৃণমূলের অনেকের রাজপ্রাসাদ হয়েছে৷ নাম না করে তৃণমূল যুবসভাপতির বাড়ি নিয়ে একের পর এক প্রশ্ন তোলেন আসানসোলের সাংসদ৷

তিনি দাবি করেন, ‘‘অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘরে কাটমানির টাকায় চলন্ত সিড়ি হয়েছে৷ এমনকি রাস্তার সামনের সিড়িটাতেও কাটমানির টাকায় পাথর লাগানো হয়েছে৷’’ নিজের আয়ের টাকায় ‘প্রাসাদ’ তৈরি সম্ভব নয় বলে জানান বাবুল সুপ্রীয়৷

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করতে গিয়ে বাবুল সুপ্রীয়ো নিজের উদাহরন তুলে ধরেন৷ সাংসদ থাকা অবস্থায় নিজের টাকায় একটি বাড়ি ও গাড়ি ছাড়া তাঁর পক্ষে কিছু করা সম্ভব হয়নি বলে জানান কেন্দ্রীয় মন্ত্রী৷ কাটমানি প্রশ্নে বাবুলের বক্তব্য, ‘‘আমাকে আজ পর্যন্ত কেউ বেআইনি কাজের অফার করেনি৷ করলেও আমি সরাসরি পু্লিশের দারস্থ হব৷’’

যদিও, এর আগে ‘বাড়ি’ বিতর্ক নিয়ে মুখ খোলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় এক ব্যক্তি একটি পোস্ট করে অভিষেকের বাড়ি বলে দাবি করেছিলেন৷ ওই অভিযোগ খারিজ করে মামলাও দায়ের করেন অভিষেক৷

তাঁর গাড়ি-বাড়ি কিছুই নেই! নির্বাচন কমিশনে হলফনামা পেশ করে নিজের স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ  জানান অভিষেক৷ লোকসভা নির্বাচনে সমনোনয়নপত্র পেশ করে অভিষেক কমিশনে দেওয়া হলফনামায় জানান, তাঁর নামে কোনও বাড়ি নেই। ২০১৩-১৪ সালে তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ ছিল ৩৬ লক্ষ ৮৮ হাজার টাকা। তা বেড়ে হয়েছে ৫০ লক্ষ ৩ হাজার ১৩০ টাকা। নগদ অর্থ ৯২,৫০০ টাকা।

স্ত্রীর সম্পত্তির পরিমাণ ১ কোটি ৫১ লক্ষ ৬১ হাজার ১৫০ টাকা। স্ত্রীর হাতে নগদ অর্থ ৮৭,৩০০ টাকা৷ এছাড়া ১৫ লক্ষ ৪০ হাজার ৭৮১ টাকার লোগ্নি রয়েছে৷ অভিষেকের কাছে সোনা হয়েছে ৩০ গ্রাম। ৬৫৮ গ্রাম সোনা রয়েছে স্ত্রীর কাছে৷ ৩ লক্ষ টাকার পেন্টিংসের মালিক অভিষেক৷ তাঁর নামে কোনও মামলা বা এফআইআর নেই৷ তিনি জানিয়েছেন, স্ত্রী থাইল্যান্ডের নাগরিক হলেও সেদেশে তাঁর কোনও ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নেই৷

কমিশনকে দেওয়া হলফনামায় গত পাঁচ বছরে কী হারে আয় বৃদ্ধি পেয়েছে তাও জানিয়েছেন অভিষেক। তাতে দেখা যাচ্ছে, ২০১৩-১৪ আর্থিক বছরে বার্ষিক আয় ছিল ৩৬ লাখ টাকা। সেটাই বেড়ে ৭৫ লাখ টাকা হয়েছে। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে দেওয়া হলফনামায় অভিষেক মোট সম্পত্তি জানিয়েছিলেন ১ কোটি ৫১ লাখ ৯৯ হাজার ২৭২ টাকা। সেটা কমে ১ কোটি ৩৭ লাখ টাকা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here