আজ বিকেল: হোমওয়ার্ক করে আনেনি, তাই টানা ছয় দিন ধরে সহপাঠীদের দিয়ে ওই ছাত্রীকে ১৬৮বার চড় মারার শাস্তি দিলেন শিক্ষক। এর জেরে ওই ছাত্রীর অবস্থা শোচনীয়, ঘটনার পর থেকে ট্রমায় আচ্ছন্ন হয়ে আছে আক্রান্ত পড়ুয়া। ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি ঘটেছে গত জানুয়ারিতে, সম্প্রতি সেই ভিডিওটি প্রকাশ্যে আসায় হইচই পড়ে গিয়েছে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাতারাতি প্রচারের আলোয় চলে এসেছে ভোপালের সরকারি স্কুল।

অভিযুক্ত ভোপালের ঝাবুয়া জেলার ওই সরকারি স্কুলের বিজ্ঞানের শিক্ষক মনোজ কুমার বর্মা। পড়া না পারলে ছাত্রছাত্রীদের উপর তিনি যথেষ্ট কড়া, এমন অভিযোগ আগেই ছিল। নির্যাতিতা ছাত্রীর বাবা শিবপ্রতাপ সিংয়ের দাবি, তাঁর মেয়ে অসুস্থ ছিল। তাই হোমওয়ার্ক শেষ করে নিয়ে যেতে পারেনি। তারই শাস্তি স্বরূপ শিক্ষক মেয়ের সহপাঠীদের দিয়ে জোর করে তাকে চড় মারায়। এবং একদিন নয়, ক্লাসের অন্তত ১৪ জন পড়ুয়াকে বলা হয়, টানা ৬দিন ধরে রোজ ক্লাসে এলেই তাকে চড় মারতে। গুনে গুনে ১৬৮টি চড় মারা হয়েছে তার মেয়েকে। শিবপ্রসাদের কথায়, মেয়ে এখনও ট্রমার মধ্যে রয়েছে। সেই মানসিক চাপ কাটিয়ে উঠতে পারেনি।

ঝাবুয়ার এসপি বিনীত জৈন জানিয়েছেন, ওই শিক্ষককে কঠিন শাস্তি দেওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে। শাসন করা ভালো, কিন্তু ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে হিংসা ছড়ানোর চেষ্টা করেছেন তিনি। এই অপরাধের কোনও ক্ষমা নেই। গত সোমবারই ওই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

 

Loading...
Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here