Election Commission rejects demands of opposition parties' regarding VVPAT

নয়াদিল্লি: ইভিএমের সঙ্গে ভিভিপ্যাটের স্লিপ গণনার বিরোধীদের দাবি পত্রপাঠ উড়িয়ে দিল নির্বাচন কমিশন৷ কমিশনের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, ইভিএম গণনার পর সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে  ভিভিপ্যাটের স্লিপ গণনা করা হবে৷

মঙ্গলবার ২২টি বিরোধী দলের তরফে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরার সঙ্গে দেখা করে দাবি জানানো হয়, গণনার সময় আগে ভিভিপ্যাটের সঙ্গেই যেন ইভিএমের ভোট গোণা হয়৷ কিন্তু বিরোধীদের সেই দাবি বুধবার খারিজ করে দিল নির্বাচন কমিশন৷

বিরোধীদের এই দাবি পর জরুরি বৈঠকে বসে কমিশনের ফুল বেঞ্চ৷ নয়াদিল্লিতে নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানানো হয়. কমিশন আগে যা সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, তাই বহাল থাকবে৷ প্রথমে ইভিএম মেশিনের ভোট গোণা হবে৷ তার পর  লোকসভা আসনের মধ্যে থেকে যেকোনও পাঁচটি বুথের ভিভিপ্যাটের ভোট গণণা হবে৷

ঠিক কীভাবে হবে এবারের ভোটের গণনা পর্ব?

জানা গিয়েছে, চারটি পদ্ধতিতে গণনা হতে চলেছে। প্রথম পোস্টাল ব্যালটের ভোট গণনা হবে। এরপর গণনা করা হবে সার্ভিস ভোটারদের ভোট। তিনটি খামের ভিতরে থাকবে পোস্টাল ব্যালট। প্রথমে খোলা হবে বাইরের খাম, তারপরের খামের ভিতর থাকবে সার্ভিস ভোটারের ডিক্লেয়ারেশন এবং তৃতীয় খামে থাকবে পোস্টাল ব্যালট। এই খামের ভিতরে পোস্টাল ব্যালটের সঙ্গে থাকবে কিউআর কোড। এই কোড স্ক্যান করা হবে। যদি স্ক্যান মিলে যায়, তবেই এই ভোট গণনা করা হবে।

এরপরই ইভিএমের ভোট গণনা করা হবে। ইভিএমের সঙ্গে থাকা কন্ট্রোল ইউনিট নিয়ে আসা হবে স্ট্রং রুম থেকে। গণনা কেন্দ্রে ১৪টি টেবিল থাকবে। ১৭ থেকে ২০ রাউন্ড গণনা হবে। এ ক্ষেত্রে যদি কোনও কন্ট্রোল ইউনিট বিগড়ে যায়, তখন তার ভিভিপ্যাটের গণনা করা হবে। কন্ট্রোল ইউনিটের গণনা শেষ হয়ে গেলে শুরু হবে ভিভিপ্যাটের গণনা। লটারির মাধ্যমে প্রত্যেক বিধানসভা থেকে পাঁচটি করে ভিভিপ্যাট স্ট্রং রুম থেকে নিয়ে আসা হবে কাউন্টিং হলের ভিতরে।

ভিভিপ্যাটের পেপার গণনা করে ইভিএমের সঙ্গে মেলাবেন গণনা কর্মীরা। কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রতি রাউন্ডের গণনার পর সব রাজনৈতিক দলের এজেন্টের সই নিতে হবে। ‘নিউ সুবিধা’ অ্যাপে প্রতি রাউন্ডের গণনার পরে ফলাফল ডাউনলোড করতে হবে। ভিভিপ্যাটের গণনার জন্য এবার বেশি সময় লাগবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here