আজ বিকেল: গরম থেকে বাঁচতে মানুষ কিই না করছে। ছাতা, স্কার্ফ, নিদেন পক্ষে ওড়না বা শাড়ির আঁচল। তাও না পেলে হাতের কাছের গামছা বা তোয়ালে মাথায় দিয়েই রোদ থেকে বাঁচার চেষ্টা চলছে। অনেকেই আবার মাথা বাঁচাতে টুপিকেই আশ্রয় হিসেবে বেছে নিয়েছেন। তারপরেও রেহাই নেই, কিছু না কিছু সমস্যা লেগেই আছে। তথাকথিত ভাবে ভারতের দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলে গরমের প্রভাব বেশি। মহারাষ্ট্র, গুজরাটের মানুষে গরম পড়লেই রীতিমতো সিঁটিয়ে যায়।কেউ বাড়ির গাড়িকে শীতল রাখতে তার ছাদে ঘাস রোপণ করেন। এপর্যন্ত ঠিকই ছিল, কিন্তু গরুর গোবরের প্রলেপ যখন গাড়িতে পড়ল, তখন তো খবর হবেই। হয়েছেও তাই।

গোটা গাড়িটিকেই ঠান্ডা রাখতে গোবরের প্রলেপ দিয়েছেন মালকিন। প্রতিবেশী ব্যক্তি মহিলার এই কর্মকাণ্ড দেখে নিস্পৃহ থাকতে পারেনননি নতুন কলেবরে থাকা গাড়িটির ছবি তুলে ফেসবুকে পোস্ট করেছেন। এদিকে গাড়ির মালিকানা নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন, ফেসবুক কর্তার দাবি ঘটনাটি আমেদাবাদের, গাড়িটির মালকিন সেজল শাহ। আর গাড়িটি হল টয়োটা করোলা অলটিস। যিনি ফেসবুকে গাড়িটির গোবর লেপা ছবি পোস্ট করেছেন তিনি হলেন রূপেশ গৌরাঙ্গ দাস।

এদিকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবিটি ভাইরাল হতেই নয়া বিতর্কে জড়িয়েছেন ওই ব্যক্তি। ভাইরাল পোস্টে কমেন্ট করে এক নেটিজেনের দাবি, গাড়িটির মালিক রমনিকলাল শাহ নামের এক ব্যক্তি। আমেদাবাদের গাড়ি বলা হলেও রেজিস্ট্রেশন কিন্তু মহারাষ্ট্রের। একে তো ঠান্ডা রাখতে গোটা গাড়িতে গোবর লেপা হয়েছে, তায় মালিকানা নিয়ে দড়ি টানাটানি। সবমিলিয়ে খবরের শিরোনামে এই টয়োটা করোলা অলটিস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here