কলকাতা: ৪২-এ ৪২ আসনে জিতে দিল্লিতে সরকার গড়বে তৃণমূল৷ প্রথম দফার নির্বাচনী প্রচার মঞ্চ থেকে ঠিক এমনটাই দাবি জানিয়েছিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এবার দিল্লি দখলের লক্ষ্যে গুগলে বিজ্ঞপন দিয়ে সেই একই দাবি জানাল তৃণমূল৷ বিজ্ঞপনে গত সাত বছরে বাংলার জন্য কী করছেন মুখ্যমন্ত্রী, তার খতিয়ানও তুলে ধরা হয়েছে৷ মূলত, কর্মসংস্থানকে হাতিয়ার করেই বিজ্ঞপনে চমক দিচ্ছে বাংলার শাসক দল৷

দুটি ব্যানার সাইজে বিজ্ঞাপন দিয়ে তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়েছে, ‘দেশের শিক্ষাক্ষেত্রেও প্রয়োজন দিদির মতন একজন’৷ অন্য একটি বিজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘দেশের জনতারও প্রয়োজন দিদির মতন একজন৷’ তৃণমূলের দেওয়া বিজ্ঞাপন থেকেই বার্তাটা খুবই স্পষ্ট, বাংলা ছাড়িয়ে তৃণমূলনেত্রীর নজর এখন দিল্লি৷

বিজ্ঞাপনের উপর ক্লিক করলেই দেখা যাচ্ছে, গত সাড়ে সাত বছরে মমতা সরকারের খতিয়ান৷ বড়বড় করে সর্বভারতীয় পাঠকের জন্য ইংরেজিতে লেখা বাংলার উন্নয়নের তালিকা৷ সেখানে বাংলায় ২৮টি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা সহ এক কোটি চাকরি তৈরি করা হয়েছে বলে দাবি জানানো হয়েছে৷ কৃষকের আয় বৃদ্ধি, কন্যাশ্রী, সবুজশ্রীর মতো একাধিক জনমুখী প্রকল্পের সাফল্যের কথা তুলে ধরা হয়েছে৷

তৃণমূলের এই বিজ্ঞপন দেখে বিরোধী শিবিরে মন্তব্য, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী যখন ১ কোটি চাকরি দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করছেন, তখন কেন্দ্রীয় শ্রমমন্ত্রকের অধীনস্থ ন্যাশনাল কেরিয়ার স্কিম পোর্টালে বাংলা থেকে ২ কোটি ২০ লক্ষ ৯ হাজার ৫৩৭ জন চাকরিপ্রার্থী বেকার খাতায় নাম লিখিয়েছেন৷ চারকির দাবিতে রাজপথে প্রায় ১ মাস অনশন করেছেন চাকরিপ্রার্থীদের একাংশ৷ শিক্ষায় বিরাট উন্নয়নের কথা বলা হলেও মাধ্যমিকে প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়ার ঘটনা সহ উচ্চ মাধ্যমিকের উর্দুর প্যাক্টিক্যাল খাতা রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা গিয়েছে৷ প্রথমিক শিক্ষকদের বেতন বঞ্চনা, সরকারি কর্মীদের ডিএ সহ একাধিক দাবিদাওয়া রয়েছে৷ এরপরও বাংলা ছেড়ে এখন দিল্লিতে পা বাড়াতে চলেছেন মমতা৷’’ বিরোধীদের কটাক্ষ, ‘‘তাহলে, এবার গোটা দেশ বুঝতে পারবে, কেমন আছে বাংলা!’’

Loading...
Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here