Seemachal Express derailment

চুঁচুড়া: কোনও কারণে চালক অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বয়ংক্রিয় ব্রেক কষে থেমে যাবে ট্রেন। পাশাপাশি ট্রেনের নম্বর ও ঘটনাস্থল চিহ্নিত করে কন্ট্রোল রুমে চলে যাবে এসএমএস। কোনও কারণে চালক অসুস্থ হয়ে পড়লে ট্রেন দুর্ঘটনা এড়াতে স্কুলের বিজ্ঞান প্রদর্শনীতে এমনই একটি ভাবনাকে তুলে ধরেছে চুঁচুড়া কলেজিয়েট স্কুলের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র অভিজ্ঞানকিশোর দাস ও অর্কদীপ দাস।

চুঁচুড়ার নারকেল বাগানের বাসিন্দা সপ্তম শ্রেণীর এই ছাত্র জানায়, সেফটি অ্যান্ড অ্যালার্ট নামে তার এই প্রকল্পটিতে একটি পালস অক্সিমিটার, একটি সার্ভো মোটর, একটি মাইক্রো কন্ট্রোলার ও একটি সিম ৯০০ মডিউল ব্যবহার করা হয়েছে। অভিজ্ঞান জানায়, সুস্থ ও স্বাভাবিক মানুষের কাজকর্ম করার সময় রক্তে অক্সিজেন সরবরাহের পরিমাণ ৯৫ থেকে ১০০ থাকে। কোনও কারণে মানুষ ঘুমিয়ে পড়লে বা হার্ট অ্যাটাক হলে অক্সিজেন সরবরাহের পরিমাণ ৮০-র নীচে নেমে যায়। এই বিষয়টিকেই মূল প্যারামিটার করে এই প্রকল্পটির কাজ করেছি। আমাদের পরিকল্পনা অনুযায়ী ট্রেনের চালকের হাতের আঙুলে একটি অক্সি পালস মিটার আংটির মতো লাগানো থাকবে। যার রিডিং তার বা ওয়্যারলেস সিস্টেমের মাধ্যমে একটি মাইক্রো কন্ট্রোলারে যাবে। মাইক্রো কন্ট্রোলারটির সঙ্গে একটি সিম ৯০০ ও একটি ব্রেকের সঙ্গে সংযোগ করে একটি সার্ভে মোটর যুক্ত করা থাকছে। মাইক্রো কন্ট্রোলারটিতে আমরা দুটি প্রোগ্রামিং ঠিক করে দিয়েছি। প্রথমত অক্সি পালস রেট রিডিং ৮০-র নীচে নামলে মোটর অটোমেটিক চলতে শুরু করবে যার ফলে ট্রেনটি থেমে যাবে।

Loading...
Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here