জম্মু ও কাশ্মীরের প্রায় ৩০০ পড়ুয়ার ভবিষ্যত বাঁচাল বায়ুসেনা। ক্রমাগত তুষারপাতের ফলে জম্মু-শ্রীনগর জাতীয় সড়ক পুরোপুরি বন্ধ। কাশ্মীরের সঙ্গে গোটা ভারতের সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা এই জাতীয় সড়কের ওপর নির্ভরশীল। এদিকে ১০ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হতে চলেছে গ্রাজুয়েট ‘অ্যাপ্টিটিউড টেস্ট ইন ইঞ্জিনিয়ারিং’ বা গেট পরীক্ষা। কিন্তু সড়ক যোগাযোগ বন্ধ থাকায় আতান্তরে পড়ে পড়ুয়ার। এই অবস্থায় ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে মুশকিল আসানে নামে বায়ুসেনা।

দফায় দফায় জম্মু ও শ্রীনগরে পৌঁছে দেওয়া হয় পড়ুয়াদের। নামানো বায়ুসেনার সবচেয়ে বড় বিমান গ্লোব মাস্টারকে। বায়ুসেনা, সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৩১৯ পড়ুয়াকে তাঁদের জ্ম্মু ও শ্রীনগরে পৌঁছে দেওয়া হয়। শুধু তাই নয়, পর্যটক সহ আরও ৫৩৮ জনকেও উদ্ধার করা হয়েছে। পড়ুয়ারাও এই বিপদের দিনে বায়ুসেনাকে পাশে পেয়ে কৃতজ্ঞতা জানাতে ভোলেনি।

Loading...
Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here