কলকাতা: রাজ্য সরকারি দপ্তরে লোয়ার ডিভিশন ক্লার্ক (এলডিসি) নিয়োগের ক্ষেত্রে অর্থদপ্তরের জারি করা নয়া নির্দেশিকা ঘিরে সফল প্রার্থীদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। কারণ, সংশ্লিষ্ট পদের জন্য পাবলিক সার্ভিস কমিশন (পিএসসি) আগেই চূড়ান্ত মেধা তালিকা প্রকাশ করেছিল। তারপর হঠাৎ করে অর্থদপ্তরের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়, সফল প্রার্থীদের টাইপ টেস্ট নিতে হবে। ফলে চিন্তায় পড়েছেন তাঁরা। ভবিষ্যতে আর কী কী হতে পারে, তা নিয়ে তাঁদের উদ্বেগ বেড়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক প্রার্থীর দাবি, পিএসসি’র তরফে যাবতীয় আনুষ্ঠানিকতা শেষে ভেবেছিলাম নিয়োগপত্র হাতে পাব। তারপর হঠাৎ করে একদিন কমিশনের তরফে জানানো হয়, আমাদের টাইপ টেস্ট দিতে হবে। যা শোনার পর রীতিমতো হতাশ হয়ে পড়েছিলাম। কেন এত বড় একটা পরীক্ষার চূড়ান্ত পর্যায়ে এসে এই সিদ্ধান্ত নিতে হল, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ওই প্রার্থী। যদিও পিএসসি’র তরফে জানানো হয়েছে, এক্ষেত্রে আমাদের কিছু করার নেই। অর্থদপ্তর থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। আমরা তা পালন করেছি মাত্র।

পিএসসি সূত্রের দাবি, চাকরি পাওয়ার জন্য বিবেচিত হয়েছিলেন ১৬০০ জন। শূ্ন্যপদের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ১২০০। সম্প্রতি সংশ্লিষ্ট প্রার্থীদের টাইপ টেস্ট নেওয়া শেষ হয়েছে। দৃষ্টিহীন প্রার্থীদের কেবল এই টেস্ট বাকি রয়েছে। আগামী ১০ আগস্ট বেহালা ব্লাইন্ড স্কুলের তত্ত্বাবধানে ব্রেইলের সাহায্যে তা নেওয়া হবে। সাধারণ প্রার্থীদের ক্ষেত্রে ১ মিনিটে ইংরেজি ও বাংলায় যথাক্রমে ২০ এবং ১০টি করে শব্দ টাইপ করার পরীক্ষা নেওয়া হয়েছিল। যদিও দৃষ্টিহীনদের ক্ষেত্রে কেবল ইংরেজি টাইপ টেস্ট হবে। তবে শব্দ সংখ্যা কমে ১২ করা হয়েছে।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here