কলকাতা: মাধ্যমিকে রিভিউ-স্ক্রুটিনিতে সাত হাজারেরও বেশি পরীক্ষার্থীর নম্বর বেড়েছে। মেধাতালিকাতেও নতুন করে ঢুকেছে ছ’জন। কিন্তু নম্বরের এত বিশাল হেরফেরে পরীক্ষক বা প্রধান পরীক্ষকদের বিরুদ্ধে কোনওরকম ব্যবস্থা নেওয়া তো দূর, কারণ জানতে চাওয়ার সিদ্ধান্তও নিতে পারেনি মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। যদিও, উচ্চ মাধ্যমিকে প্রায় ছ’হাজার ছাত্রছাত্রীর নম্বর বাড়ায় পরীক্ষকদের কারণ দর্শাতে বলেছিল উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। সেই চিঠি তৈরি হচ্ছে। প্রায় ১০০ জন পরীক্ষক এবং স্ক্রুটিনিয়ারকে নিজে উপস্থিত হয়ে সংসদে কারণ ব্যাখ্যা করতে হবে। পর্ষদ সূত্রে খবর, মোট ৩৩,১৬৬ জন পরীক্ষার্থী রিভিউ-স্ক্রুটিনির জন্য আবেদন করেছিল। তার মধ্যে সাত হাজারেরও বেশি পরীক্ষার্থীর নম্বর বেড়েছে। আবেদনকারীর সাপেক্ষে এই হার ২৩.২৩ শতাংশ। যদিও, পর্ষদের সাফাই, মোট পরীক্ষার্থীর সাপেক্ষে এটা ০.১ শতাংশের কম। সম্ভবত সেই কারণেই পর্ষদ এখনই কড়া হওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়নি। পর্ষদের উপসচিব (পরীক্ষা) মৌসুমি ভদ্র এ প্রসঙ্গে বলেছেন, এখনও কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। দেখা যাক, কী করা যায়।

Loading...

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here